ল্যাপটপ এর ব্যাটারী দীর্ঘদিন কীভাবে ভালো রাখবেন?

ল্যাপটপ বর্তমান সময়ের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ডিভাইস। ডিভাইস যত ভালোই হোক না কেন, তা কতদিন ভালো থাকবে নির্ভর করে ল্যাপটপের ব্যাটারির উপর। চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে ল্যাপটপকে ভালো রাখবেন।

০১. অনেকেই বাজার থেকে নিম্নমানের এডাপ্টার ইউজ করেন যা ব্যাটারী জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারন। সঠিক ভোল্ট, এম্পিয়ার না হলে আপনার নষ্ট ব্যাটারীর জন্য নিম্নমানের এডাপ্টারই দায়ী।
০২. ইমার্জেন্সি প্রয়োজন ছাড়া জেনারেটর, আইপিএস বা সোলার সিস্টেম থেকে ল্যাপটপ চার্জ না দেয়াই ভাল। সরাসরি বিদ্যুত থেকে ব্যাটারী চার্জ দিলে অবশ্যই ব্যাটারী ভাল থাকবে।
০৩. ল্যাপটপের চার্জ ২০ থেকে ৩০ শতাংশ অবশিষ্ট থাকলে তখনই এটি চার্জ করে নেওয়া ভালো। তবে প্রতি ১মাসের মধ্যে মিনিমাম একবার সম্পুর্ন ডিসচার্জ করে তার পর 100% চার্জ করতে হবে।
০৪. একটানা ৫/৬ ঘন্টা ব্যাটারী চার্জ দিন। ল্যাপটপের চার্জের স্তর ১০০% হলে ব্যাটারি চার্জ নেওয়া বন্ধ করে সরাসরি বিদ্যুৎ থেকে শক্তি নিয়ে চলতে থাকে।
০৫. ল্যাপটপের ব্যাটারি পুরো চার্জ করে কমপক্ষে ২ ঘণ্টা সময় দিয়ে ব্যাটারিকে ঠান্ডা করে নিন। দুই ঘণ্টা পর আবার ল্যাপটপ চালু করে ডেস্কটপের ডান পাশে নিচে ব্যাটারির আইকনে ডান ক্লিক করে Power Option চালু করুন। এখানে পাওয়ার প্ল্যান থেকে Balanced (recommended)-এর Change plan settings-এ ক্লিক করুন। আবার Change Advanced power settings-এ ক্লিক করে সেটি খুলুন। এবার Battery-তে ক্লিক করে Critical battery action-এর on battery-তে Hibernate নির্বাচন করে দিন। এটি আগে থেকেও করে দেওয়া থাকতে পারে। তখন নতুন করে আর করার দরকার নেই। Critical battery level-এর on battery এবং Plugged in-এ ৫% নির্ধারণ করে দিন।
০৬. একটানা ৫ দিনের উপর ল্যাপটপ ব্যবহার না হলে, ল্যাপটপ থেকে ব্যাটারীটি খুলে রাখুন।
০৭. কম্পিউটার হাইবারনেটে চলে যাওয়ার আগেই অন্য যেকোনো কাজ করে ব্যাটারির চার্জকে নিঃশেষ করে নিন। হাইবারনেট বিশেষ পাওয়ার সংরক্ষণ সুবিধা আছে। কাজ শেষে কম্পিউটার বন্ধ হলে ঘণ্টা খানেক পর আবারও চার্জ করে ব্যবহার করুন।
০৮. শুকনো যায়গায় রাখুন, স্যাতস্যাতে পরিবেশে ল্যাপটপ সংরক্ষণ করবেন না। এতে যেমন ল্যাপটপের ক্ষতি হয় তেমনি ব্যাটারীও নষ্ট হয়ে যায়।
০৯. উইন্ডোজ ভিস্তা এবং ৭ অপারেটিং সিস্টেমের কিছু ছবিভিত্তিক আবহ ও থিম ব্যাটারির স্থায়িত্ব কমায়। তাই যাঁদের ল্যাপটপে চার্জ কম থাকে, তাঁরা Windows 7 Basic Theme থিম ব্যবহার করুন। এটি ডেস্কটপে ডান ক্লিক করে Personalize-এ পাওয়া যাবে।
১০. কোলের উপর রেখে/বিছানার উপর রেখে যদি ল্যাপটপ চালানো হয়, এবং তখন কুলিং সিস্টেম বাধাপ্রাপ্ত হয়ে ল্যাপটপ গরম হলে যেমন ল্যাপটপের ক্ষতি হয় তেমনি অত্যাধিক হিটে ব্যাটারী নষ্ট হয়ে যায়। সুতরাং এ বিষয়ে সাবধান থাকতে হবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top