এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষাথীদের খাতা জমার নতুন নির্দেশনা

চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ে অনুষ্ঠিত হবে। এসব পরীক্ষার্থীকে ব্যবহারিক খাতা জমা নিয়ে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। বোর্ড বলছে, এসএসসি পরীক্ষার্থীদের সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচি অনুসারে প্রতিটি বিষয়ের যেকোনো দুটি ব্যবহারিক কার্যক্রমের খাতা তৈরি করে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে জমা দিতে হবে। আর এইচএসসি পরীক্ষার্থীদেরও তার নৈর্বাচনিক বিষয়ের প্রতিটির প্রতি পত্রের জন্য সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচিতে দেওয়া ব্যবহারিকের দুটি করে ব্যবহারিক কার্যক্রমের খাতা তৈরি করে জমা দিতে হবে।

এসএসসি ও সমমানের এবং এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের ব্যবহারিক খাতা নিয়ে এই নতুন নির্দেশনা দিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।

শিক্ষা বোর্ড বলছে, করোনা অতিমারির কারণে ২০২১ সালের এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার পাঠ্যসূচি পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে। যেসব বিষয়ে ব্যবহারিক আছে, সেসব বিষয়ে পুনর্বিন্যাসকৃত পাঠ্যসূচিতে কী কী ব্যবহারিক করতে হবে, তা–ও উল্লেখ করা আছে। যেহেতু করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২১ সালের এসএসসি ও সমমান ও এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীদের শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে, সেহেতু নৈর্বাচনিক বিষয়ের ব্যবহারিকের খাতা (নোট বুক) জমা নেওয়া প্রয়োজন।

ব্যবহারিক খাতা জমার হিসেব দিয়ে বোর্ড আরও বলছে, এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীরা তার নৈর্বাচনিক প্রতিটি বিষয়ের সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচিতে উল্লেখিত ব্যবহারিকের যেকোনো দুটি ব্যবহারিক কার্যক্রমের খাতা (নোট বুক) তৈরি করে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে জমা দেবে। একইভাবে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীরা তার নৈর্বাচনিক বিষয়ের প্রতিটির (যেগুলোতে ব্যবহারিক আছে) প্রতি পত্রের জন্য সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচিতে উল্লিখিত ব্যবহারিকের দুটি করে ব্যবহারিক কার্যক্রমের খাতা (নোট বুক) তৈরি করে জমা দেবে।

শিক্ষা বোর্ড আরও বলছে, ইতিমধ্যে যদি কোনো শিক্ষার্থী ২০২১ সালের সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচির আলোকে প্রতি পত্রে দুটির বেশি ব্যবহারিক কার্যক্রম সম্পন্ন করে থাকে, তাহলেও শিক্ষার্থী ওই সব ব্যবহারিক খাতা বা নোট বুক জমা দিতে পারবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top